প্রথম টেস্ট খেলতে বাংলাদেশ দল ওয়েলিংটন এ

প্রথম টেস্ট খেলতে বাংলাদেশ দল ওয়েলিংটন এ

ফজলুল বারী, ওয়েলিংটন থেকে: ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিতে ধবল ধোলাই। এরপর ঘোষিত দ্বিপাক্ষিক সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলতে বাংলাদেশ দল সোমবার ওয়েলিংটন এসে পৌঁছেছে। এটি নিউজিল্যান্ডের রাজধানী শহর। বৃহস্পতিবার এখানে শুরু হবে সফরের দুই টেস্টের প্রথমটি। নিউজিল্যান্ডের আর সব শহরের মতো এই ওয়েলিংটনও ছবির মতো সাজানো-সুন্দর। অন্য শহরগুলোর সঙ্গে এর পার্থক্য এখানকার বেশিরভাগ বাড়িঘর, স্থাপনা সমূহ বেশ পুরনো। মাউরি রাজ্যে এসে বৃটিশরা যে এখানে প্রথম বসতি-স্থাপনা গড়তে শুরু করেছিল এটিই সে নিদর্শন হয়ে আছে যেন।  আর  সারাক্ষন এখানে প্রশান্ত মহাসাগর থেকে ভেসে আসা বাতাস বয়। তা আকাশে হোক বা ভূমিতে যেখানেই হোক না। আকাশ পথে যারা ওয়েলিংটন আসেন তারা দমকা বাতাসের ধাক্কায় বেশ কিছু সময় ভয় ধরানো দুলুনিতে পড়েননি এমন অভিজ্ঞতা খুব কমজনের হয়। উড়োজাহাজের বাম্পিং এর ভয়ে বিমানে ওয়েলিংটন আসা এড়িয়ে চলতে চান মাশরাফি বিন মুর্তজা। টিম-টাইগার্স দলের দুই শিক্ষক কোর্টেনি ওয়ালেশ, প্রশিক্ষক মারিয়া ভিল্লাভারায়নও একই কারনে সোমবার বিমানে ওয়েলিংটন আসেননি। অকল্যান্ড থেকে এসেছেন সড়ক পথে। ওয়েলিংটন পৌঁছে আমরা যে হোটেলে উঠেছি বাতাসের ঝাপটায় এর দরজা-জানালা শুরু থেকে যে ঘনঘন ঠাসঠাস শব্দ ধবনি শোনাচ্ছে তা এরমাঝে শহরটির প্রথম রাতের অভিজ্ঞতা হয়ে গেছে।

এখানকার বেসিন রিজার্ভ মাঠে বৃহস্পতিবার মুশফিকরা যখন খেলতে নামবেন তখন প্রতিপক্ষকে পরপর ছয় ম্যাচে নাকানিচুবানি খাইয়ে হারিয়ে উড়তে থাকা কিউই দলের পাশাপাশি তীব্র বাতাসের সঙ্গেও লড়তে হবে। আরেকটি খবর ক্রাইস্টচার্চের ম্যাচে চোটে পড়া বাংলাদেশের টেস্ট ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহমান ওয়েলিংটন টেস্টের মাধ্যমে আবার আনুষ্ঠানিক ফিরে আসবেন বাইশ গজের লড়াইয়ে। ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ দলের প্রায় আশা জাগিয়ে হেরে যাবার পিছনে অনেক কারনের মধ্যে একটি কারন বলা হচ্ছে আমাদের মুশফিক তথা মুশি নেই। ওয়েলিংটন টেস্টে মুশফিকের ফিরে আসার মাধ্যমে বাংলাদেশের ভাগ্য বদলাবে কী? প্রশ্ন আসতে পারে আশাটা একটু বেশি করা হয়ে গেলোনা? এসব যে প্রশ্নই আসুক না কেন মুশি ফেরায় দলের শক্তি বদলাবে এটাতো অসত্য নয়। মাশরাফির মতো বাংলাদেশ দলের জন্যে জানপ্রান দিয়ে লড়ার দ্বিতীয় মানুষটির নাম কিন্তু এই মুশি।

নিউজিল্যান্ড সফরের উদ্দেশে ডিসেম্বরে বাংলাদেশ দল যখন কন্ডিশনিং ক্যাম্প করতে সিডনি আসে তখন দলের সঙ্গে ছিলেন ২২ সদস্য। এই ২২ সদস্য নিউজিল্যান্ড পর্যন্তও একসঙ্গে আসেন। কোন ক্রিকেটদল বিদেশ সফরে এলে দলটিতে ২২ জন ক্রিকেটার থাকেন এমন সচরাচর শো্না যায়না। বাংলাদেশের নির্বাচকরা তখন বলেছিলেন অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে-অভ্যস্ত করতে নবীন কয়েকজনকে দলের সঙ্গে আনা হয়েছে। সেই ২২ জনের ১৭ জন এখন টেস্ট খেলতে এসেছেন ওয়েলিংটনে। এদের মধ্যে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মুর্তজা এমনিতে টেস্ট দলে নেই। শেষ ম্যাচে চোটে পড়ে মাশরাফি ডাক্তার দেখাতে গেছেন অকল্যান্ডে। সেখান থেকে সিডনি হয়ে তিনি দেশে ফিরে যাবেন। দেশে ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে শুভাগত হোম চৌধুরী, তানভীর হায়দার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত আর এবাদত হোসেনকে। এদের মধ্যে এবাদতকে অবশ্য নিউজিল্যান্ডের কোন ম্যাচেই খেলানো হয়নি।

এবার অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড সফরে আসেন ভবিষ্যতের তারকা তিন বন্ধু ক্রিকেটার। এরা হলেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মেহেদি হাসান মিরাজ এবং শান্ত। এরা তিনজন ২০১৪ সালে একসঙ্গে যুব বিশ্বকাপে খেলেছেন। গত বছর জানুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে খেলায় অভিষক হয় সৈকতের। এরপর আফগানিস্তানের বিরুদ্ধেও খেলেছেন সৈকত। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দেশের মাটিতে মিরাজের টেস্ট অভিষেক হয়। শান্ত এখনও জাতীয় দলে জায়গা পাননি। টেস্ট শুরুর আগে সৈকতকে দেশে ফিরিয়ে নেয়া হলেও মিরাজ-শান্ত এসেছেন ওয়েলিংটনে। শান্তকে দলের সঙ্গে বিকল্প হিসাবে রাখা হয়েছে। মুশফিকের ইনজুরির পর দলের সঙ্গে থাকা নুরুল হাসান সোহান জায়গা পান ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি দলে।


Place your ads here!

Related Articles

এবার আমাদের থামতে হবে -ফরিদ আহমেদ

আমরা এক সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ চাই। যেখানে অনায়াসে মানুষ বেঁচে থাকবার অবলম্বন খুঁজে পাবে। যেখানে প্রতিটি শিশু নিরাপদে স্কুলে যাবে

Canberra Eid-ul Fitr Friday 15th June 2018 / 1439

Asalamu-Alaikum  WRT WBT (Greetings of Peace to all mankind) Eid-ul Fitr 1439H / 2018AD in Canberra has been confirmed by

Kopale jodi thake gali, khondabe take ke?

কপালে যদি থাকে গালি, খন্ডাবে তাকে কে ? বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান । তাঁকে ছাড়া এই দেশটির

No comments

Write a comment
No Comments Yet! You can be first to comment this post!

Write a Comment