‘লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে ঢাকা’য় সেমিনার আয়োজন

‘লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে  ঢাকা’য় সেমিনার আয়োজন

লাইব্রেরীতে “একুশে কর্নার” বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ‘লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে  সম্মিলিতভাবে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিসটিটিউট, ঢাকা’য়  সেমিনার আয়োজনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত  

“One Small Shelf, One Giant Step FORWARD” নামে “INCITE” ম্যাগাজিনের মে ২০১৫ সংখ্যায় প্রকাশিত “Ekushey Corner at Libraryদর্শনটি পৃথিবীর সকল মাতৃভাষা সংরক্ষণের যে বিশেষ ভুমিকা রাখতে সক্ষম তার-ই প্রমান বহন করে। এটি সত্যিই অতি গর্বের বিষয় যে, Ekushey Corner at Libraryদর্শনটিকে ‘অস্ট্রেলিয়া লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন এসোছিয়েশন এর দেয়া এই বৈশ্বিকভাবে অর্থবহ নামটিকে জাতীয়ভাবে বাস্তবায়নে রুপ দিতে যাচ্ছে মহান একুশের জন্মভূমিস্থ ‘লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ’। দর্শনটির বাস্তবায়ন এবং প্রাতিষ্ঠানিকতা পেলে সাড়া বিশ্বের প্রতিটি লাইব্রেরীতে একটি ছোট বুকশেলফ সংযোজনের মাধ্যমে প্রত্যেক ভাষাভাষী নিজ নিজ উদ্যোগে তার মাতৃভাষার বর্ণমালা সংগ্রহ, এবং মাতৃভাষা সংশ্লিষ্ট সামগ্রিক তথ্যাদি সংরক্ষণের সুযোগ পাবে। এর ফলে সকল ভাষার সাধারণ মানুষ সারাবছরব্যাপী UNESCO অনুসৃত বার্ষিক “আন্তর্জাতিক  মাতৃভাষা দিবস” উদযাপনে যেমন অনুপ্রানিত হবে, তেমনি নিজ নিজ মাতৃভাষা রক্ষায় একটি প্রাতিষ্ঠানিক ধারাবাহিকতায় অংশগ্রহণের পথ প্রশস্ত হবে। এখানে উল্লেখযোগ্য যে, পৃথিবীর প্রথম “আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস স্মৃতিসৌধ” এর দশম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে ২০শে ফেব্রুয়ারি ‘১৬ সিডনীর এসফিল্ড কাউন্সিল লাইব্রেরীতে স্থানীয় মেয়র ও এমপি পৃথিবীর প্রথম “একুশে কর্নার” প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে লাইব্রেরী ইতিহাসে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করে। সেই ঐতিহাসিক অনুষ্ঠানের আমন্ত্রিত প্রাক্তন শিক্ষা সচিব জনাব এন আই খানের একান্ত আন্তরিক প্রচেষ্টার ফলে ‘লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ’ লাইব্রেরীতে “একুশে কর্নার” প্রতিষ্ঠার দৃঢ় প্রত্যয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিসটিটিউট, গণগ্রন্থাগার পরিদপ্তর, বাংলাদেশ ন্যাশন্যাল কমিশন ফর ইউনেস্কোকে সাথে করে সমন্বিত উদ্যোগে এই মহতী সেমিনার আয়োজনের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে। এখানে আরও উল্লেখ্য যে, এমএলছি মুভমেন্টের বৈশ্বিক গণসম্পৃক্ততার কৌশলী পদক্ষেপের সাথে এনএসডব্লিও সেটট পাবলিক লাইব্রেরী এবং স্থানীয় ল্যাঙ্গুয়েজ ফেস্টিভ্যাল এসোছিয়েশন একযোগে কাজ করতে শুরু করে ইতিমধ্যেই তিনটি সেমিনার সম্পন্ন করেছে এবং ১৮ই ফেব্রুয়ারী ২০১৭ সেটট পাবলিক লাইব্রেরীতে ব্যাপক পরিসরে সেমিনারের প্রস্তুতির কাজ এগিয়ে চলেছে।

আমাদের ঢাকাস্থ প্রতিনিধিসুত্রে জানা যায়, লাইব্রেরীতে “একুশে কর্নার” বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ‘লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ’ ইতিমধ্যেই সংশ্লিষ্ট সকল সরকারী-বেসরকারি বিভাগ সমূহের সমন্বয়ে এই আসন্ন সেমিনারের সার্বিক পরিকল্পনা, সেমিনার পরিচালনা পর্ষদ ও উপ-কমিটি গঠন, সেমিনার ভেন্যু সহ যাবতীয় বিষয়াদি চূড়ান্ত করেছে। আগামী ২৮শে ফেব্রুয়ারি ’১৭ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিসটিটিউট, ১ সেগুন বাগিচা,  রমনা, ঢাকার সেমিনার হলে অনুষ্ঠিতব্য এই বিশেষ অর্থবহ সেমিনার পরিচালনা পর্ষদের কনভেনর হিসেবে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিসটিটিউট এর মহাপরিচালক প্রফেঃ জিনাত ইমতিয়াজ আলি, যুগ্ম কনভেনর হিসেবে বাংলাদেশ ন্যাশন্যাল কমিশন ফর ইউনেস্কোর সচিব, জনাব মনজুর হোসেন এবং লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ এর সভাপতি প্রফেঃ এম নাসির ঊদ্দিন মুন্সী, সদস্য(১-৪) হিসেবে পরিচালক-গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তর, পরিচালক-আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিসটিটিউট, জনাব কাজী আবদুল মাজেদ সহ-সভাপতি ল্যাব, জনাব এস এম হুমায়ুন কবির টুটুল, সাংগঠনিক সম্পাদক ল্যাব এবং সদস্য সচিব হিসেবে ডঃ মিজানুর রহমান, মহাসচিব ল্যাব দায়ীত্ব গ্রহন করেছেন। এই বিশেষ সেমিনারকে সার্বিকভাবে অর্থবহ করার লক্ষ্যে উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করবেন প্রাক্তন শিক্ষা সচিব জনান এন আই খান। প্রধান অতিথি হিসেবে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে সর্বজন শ্রদ্ধেয় প্রফেঃ আনিসুজ্জামান উপস্থিত থেকে সেমিনারকে অলংকৃত করবেন। সেমিনারের মুল প্রবন্ধ পাঠ করবেন মাদার ল্যাংগুয়েজেস কনজারভেসন(এমএলসি)মুভমেন্ট ইন্টারন্যাসন্যাল-র প্রতিষ্ঠাতা এবং ‘একুশে কর্নার’ দর্শনের প্রবক্তা মি নির্মল পাল। প্রবন্ধের উপর বিশ্লেষণিক বিশেষজ্ঞ পর্যালোচনা করবেন যথাক্রমে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনিসটিটিউট এর মহাপরিচালক প্রফেঃ জিনাত ইমতিয়াজ আলি, গণগ্রন্থাগার অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মি আশিস কুমার সরকার, এবং লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি প্রফেঃ এম নাসির ঊদ্দিন মুন্সী। তাঁদের পর্যালোচনামূলক বক্তব্যের পর বিষটির উপর বৈশ্বিক প্রসারতা এবং সকল মাতৃভাষা সংরক্ষণে প্রভাব ও কার্যকারিতার উপযুক্ততা নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনার অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হবে যাতে বিষয়টি বাস্তবায়নে ইউনেস্কোর দৃষ্টিগোচরিভুত করা সহজতর হয়। সদস্য সচিব ডঃ মিজানুর রহমান এর উপস্থাপনায় সেমিনারে সভাপতিত্ব করবেন প্রফেঃ এম নাসির ঊদ্দিন মুন্সী সভাপতি লাইব্রেরী এসোছিয়েশন অব বাংলাদেশ। মহতি এই উদ্যোগে সংশ্লিষ্ট বিভাগের সমন্বিত আয়োজন আমাদের ‘মা’ এবং ‘মাতৃভাষা’র প্রতি নীবির ভালবাসা আবার নূতন ভাবে বৈশ্বিক পরিসরে দেখা দিবে এটা নিশ্চিত ভাবে বলা যায়। মাদার ল্যাংগুয়েজেস কনজারভেসন(এমএলসি)মুভমেন্ট ইন্টারন্যাসন্যাল এর নির্বাহী পরিচালক জনাব এনাম হক এই উদ্যোগকে একটি ঐতিহাসিক পদক্ষেপ হিসেবে মূল্যায়ন করে চেয়ারপার্সন মি নির্মল পাল এবং তার সাম্প্রতিক বাংলাদেশ সফরকালে এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক ও গঠনমূলক আলোচনা এবং উপর্যুপরি পর্যালোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ায় বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।                     


Place your ads here!

No comments

Write a comment
No Comments Yet! You can be first to comment this post!

Write a Comment