বিষণ্ণ শহরের পথে

বিষণ্ণ শহরের পথে

এ শহরে আমার কোনো বন্ধু নেই! 
অবশ্য এ নিয়ে আমার কোনো আক্ষেপ, অনুযোগ, উৎকণ্ঠা নেই।

বন্ধুহীন শহরের রাস্তায় আমি যে দীর্ঘশ্বাস নিয়ে হাঁটি, 
তা বন্ধুহীনতার নয়, নয় একাকীত্বের। 
কেবল একরাশ ক্লান্তির!

এ শহরে ক্লান্তি মুছবার মত আমার কোনো গামছা নেই। 
আমি ফুটপাতে দাঁড়িয়ে নতুন গামছা দেখি। 
এ শহরে আমরা প্রত্যেকেই তো একেকটা দীর্ঘশ্বাস বয়ে বেড়াই।

এ শহরে প্রত্যেকের মন একেকটা সাদা থান পরে আছে। 
বিধবা মন নিয়ে সাংসারিক দম্পতি যাপন করছে দিনরাত।

এর চেয়ে নৃশংস নয় আমার বন্ধুহীনতা। 
আমি আমার অবসাদ ফেরি করি না কারো দুয়ারে।

 
যে শহরে সকালের রোদেরা অভিশপ্ত, 
হাড়ের সন্ধিতে জমাট ব্যথার মত অসহ্য জীপন যাপন, 
সেখানে আমার দুঃখের কথা বলে আমি কার বুক ভারী করব?


Place your ads here!

Related Articles

কবিতার ছেঁড়া পাতা

কবিতার ছেঁড়া পাতা স্মৃতির ডায়েরী থেকে, কবিতার পাতা ছিঁড়ে যায়, স্মৃতি যায় রেখে। কবিতার পাতা হারিয়ে যায়, নিভৃত কাননে, কবিতার

বৃষ্টি যখন – নদীটা কোথাও আছে

হাজার বছর ধরে বৃষ্টি আমি ঝরছি অঝর ধারায় ঝরছি তো ঝরছিই… মাঠ ঘাট শস্য লোকালয় কিছুই বাকি থাকে না; ভেসে

অসাধ্য সাধন

আজন্ম শিখেছে তাই বৈঠা বেয়ে যায় নয় তরী ভরাডুবি সাধু সাবধান গণিতের ছকে চলে গায় জয়গান ঘাটে ঘাটে নাও ভিড়ে

No comments

Write a comment
No Comments Yet! You can be first to comment this post!

Write a Comment