অচলায়তন – Achalayatan (1st Show)

অচলায়তন – Achalayatan (1st Show)

SATURDAY, JULY 29, 2023 AT 6 PM

Please use the following link to purchase tickets 🎫 online: https://www.trybooking.com/CINLX

1st Show: 29th July 2023, Saturday, 6:00 pm
2nd Show: 30th July 2023, Sunday, 5:00 pm
Venue: Chandler Community Centre,
28 Isaac Rd, Keysborough, VIC 3173

Direction: Zahid Repon (Renowned Theatre Activist, Bangladesh)
Co-Direction: Moulinath Gangully
Production Coordination: Kamruzzaman Balark

Contact: Moum Mazid, 0425 392 334, Balark 0438 381 179

Background of Achalayatan :
——————————-
Rabindranath Thakur’s eternal play on social transformation, Achalayatan, which is even more relevant today than it was when originally written in 1911 around the time of partition of Bengal. With joint effort of Bangalis from both Bengals, through this huge production, Renaissance Drama Society with great humility pays its Guru Dakshina to Rabindranath Thakur. A transnational documentary is being produced based on the making of Achalayatan.

Achalayatan is a conflict between restrictive processes & free spirit. Over time, story tellers have attached their own interpretations. Arpita Ghosh, or Pancham Baidik in Kolkata states recently “I consider Achalayatan as a Political play by Tagore. The time is now to charge up the viewers with a presentation of this iconic play. The way the powers that be, are tying up the populace in strong bonds, we need to open up the societal windows NOW. We need to break out from narrow sectarianism. In the Seventies, Natyacharjya Salim Al Din stated a similar view in Dhaka “ Dadathakur breaks down the walls with a smile”. More Dadathakurs in our society will speed up the pace of social transformation. Populace will escape from the grip of the traditional atmosphere of oppressive divisions. The Shonpangshus & the Darbhaks who are left behind by the societal elite, will be accepted in the mainstream with open arms. Everybody will work together to create a dynamic, tolerant society, which would not need to be broken down. There will be no divisions marked by religion, nationalities & the like. Love and relationships will flow freely.

This play written in 1911 was essential in the backdrop of the Partition of Bengal. This was Tagore’s brave statement against the then prevailing societal forces of division in the Bengali diaspora, fanned by the ruling British to further their self-interest through “Divide & Rule”. Tagore’s bold stance against the prevailing orthodoxy generated a lot of debate & arguments at that time. Sadly, the societal transformation that Tagore visualised is yet to fully take shape. Even after 76 years of the final partition of Bengal, the institutionalised religious beliefs that caused the division are still strident across the barbed wire. The people have left their lands in partitioned Bengal. They have settled far away in a third world. We have left behind the memories of a much-loved land of our ancestors, society & culture, enriched by the mighty Padma & Ganga rivers. We, the Melbourne Bangalis are united through our love for the Bengali language, culture, and soul.

Like Tagore’s iconic poem “A hundred years from today”, we are still moved by his plays and Nritya natyas. We are seeking answers today’s issues facing us in Australia, through his creations. Achalaytan is an allegorical play which is applicable to any society or country. In our new Homeland of multicultural Australia, are we building new walls that divide in the same old way? At this moment of internationalisation, are we hearing the message on unity in diversity, in the “march of time”?

A great news is that a documentary is being created around the Renaissance’s production of Achalayatan by Biswajit Mitra of Melbourne & a film maker of the new generation Sankhajit Biswas.

অচলায়তন নাটকের নান্দীপাঠ:
———————————
সমাজ সংস্কারে রবীন্দ্র ভাবনার কালজয়ী নাটক ‘অচলায়তন’ যা সমকালের দর্পনেও প্রাসঙ্গিক; দুই বাংলার বাঙলিদের মিলিত প্রচেষ্টায় এই বিশাল প্রযোজনার মাধ্যমে রেনেসাঁ ড্রামা সোসাইটি নাট্যকার কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে নিবেদন করছে সত্যিকারের গুরু দক্ষিনা।

অচলায়তন হলো প্রথার সঙ্গে প্রাণের দ্বন্দ্ব, এই নাটককে কালের কথকরা বিভিন্ন অনুষঙ্গে সম্পৃক্ত করেছেন: কলকাতার ‘পঞ্চম বৈদিক’ নাট্যদলের ‘অচলায়তন’ নাটকের নির্দেশক অর্পিতা ঘোষ বলেন, “এ নাটককে রবীন্দ্রনাথের রাজনৈতিক নাটক মনে করি আমি। আর এই তো সময় এই নাটক পুনরায় অভিনয় করে দর্শকদের উজ্জীবিত করে তোলার। যেভাবে দেশের শাসকগোষ্ঠী কড়া নজরদারিতে বেঁধে ফেলতে চাইছে মানুষজনকে, সমাজকে এখনই তো জানালাগুলো খুলে দেওয়া দরকার, সংকীর্ণতার অচলায়তন ভেঙে বেরিয়ে আসা দরকার।“ সত্তর দশকে ঢাকার মঞ্চে ‘অচলায়তন’ দেখে নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন এই নাটকে সহমত পোষণ করে যেমন লিখেছিলেন, “হাসতে হাসতে দেয়াল ভাঙো দাদাঠাকুর”। আমাদের সমাজে দাদাঠাকুরের দল যত ভারী হবে ততই সংস্কারের কাজটা ত্বরান্বিত হবে, অচলায়তনিক বাতাবরণ ভেঙে বেরিয়ে আসবে সনাতনীরা – ভেদাভেদ ভুলে অন্ত্যজ শোনপাংশু ও ব্রাত্য দর্ভকদের মতো তারাও যোগ দিবে এই দলে এবং সবার মিলিত প্রচেষ্টায় বিনির্মাণ হবে এক সচলায়তন, পরম সহিষ্ণু সমাজ যা আর কখনোই ভাঙতে হবে না, যেখানে জাত,বর্ণ ও ধর্মের দেয়াল থাকবে না, সম্পর্কের মুক্তধারা বইবে সর্বত্র।

১৯১১ সালে লেখা এই প্রয়োজনীয় নাটকটি ছিল বঙ্গভঙ্গের সময় তৎকালীন বাঙলী সমাজের চালচিত্রের বিপক্ষে কবিগুরুর এক সাহসী অবস্থান যা সেই সময় অনেক আলোচনা- সমালোচনার জন্ম দিয়েছিল, তারপর এক শতাব্দীর অধিক সময় পার হয়ে গেছে কিন্তু আটপৌরে সমাজ সংস্কার এখনো হয়নি সেজন্য সমকালেও ‘অচলয়াতন’ প্রাসঙ্গিক। দেখতে দেখতে বাংলাভাগের ৭৬ বছর আমরা পার করলাম, যেই Institutionalized religious beliefs নিয়ে আমরা এতোটা উচ্চকণ্ঠ, কাঁটাতার দিয়ে শেষে দেশটাই ভাগ করে দিলাম কিন্তু সেই ভাগের মানুষেরা আর সেখানে থাকিনি, নাড়ির টান ছিঁড়ে, বিভক্ত বাংলা ছেড়ে সাতসমুদ্র তেরো নদীর ওপারে তৃতীয় এক ভুবনে বসতি গড়েছি, পেছনে ফেলে এসেছি এক জীবনের দীর্ঘশ্বাস, সমাজ-সংস্কৃতি আর গঙ্গা-পদ্মা পাড়ের বড়ো আপন সাত পুরুষের ভিটা। মেলবোর্ণের বাঙালী আবার এক হয়েছে বাঙলা ভাষার টানে, সংস্কৃতির টানে, প্রাণের টানে।

রবীন্দ্রনাথের “আজি হতে শতবর্ষ পরে” কবিতার মতো নাটক নিয়েও আমরা বাঙলিরা এখনো মাতামাতি করছি, রবীন্দ্রভাবনার জট খুলছি আমাদের আজকের প্রয়োজনে।‘’অচলায়তন’ একটি রূপক নাটক যে কোন দেশ বা সমাজের ক্ষেত্রেই এটি প্রযোজ্য, বহুজাতিক সংস্কৃতির দেশ অস্ট্রেলিয়াতে আমরা কি সেই দেয়াল আবারও গড়ছি ভিন্ন অনুষঙ্গে, ভিন্ন ব্যঞ্জনায়? এই বিশ্বায়নের যুগে ‘কালের যাত্রার ধ্বনি’ আমরা কি শুনতে পাচ্ছি’?

একটি সুখবর জানিয়ে রাখি, রেনেসাঁর এই প্রযোজনাকে উপজীব্য করে ভিন্ন ব্যাপ্তিতে একটি ডকুমেন্টারী নির্মাণ করছে মেলবোর্নের বিশ্বজিৎ মিত্র ও কলকাতার এ প্রজন্মের নির্মাতা শঙ্খজিৎ বিশ্বাস।
এক বিশাল ক্যানভাসে নৃত্য, গীতি ও অভিনয় সহযোগে রেনেসাঁর এই নান্দনিক প্রযোজনা উপভোগ করার জন্য আপনাদের সাদর আমন্ত্রণ।


Place your ads here!

Related Articles

Second Consular Camp in Melbourne on 30 and 31 August 2008 (Saturday and Sunday)

Bangladesh High Commission, Canberra : 01 July 2008 : Press Release This is to inform that the High Commission will

Bangla Nobo Borsho Celebration: 18 April 2009 in Melbourne

Dear Friends, Shurolok Music Appreciation and Performance Group is pleased to announce its annual program 2009, to be held on

Srotar Ashor's next program Rescheduled to March 7 in Melbourne

Dear Srota, Srotar Ashor advises that due to unforeseen circumstances our next program “Phagun legeche Bon e Bon e” has

No comments

Write a comment
No Comments Yet! You can be first to comment this post!

Write a Comment